ভারতীয় হাই কোর্ট নির্দেশ অনুযায়ী ২৫,৬৩০ জন শিক্ষক নিয়োগ

জরুরী সূচনাঃ-  কলকাতা হাই কোর্টের নির্দেশে স্কুল শিক্ষা দফতর কোন স্কুলে কত শূন্যপদ আছে তা প্রকাশ করে। ২৯ জুলাই শিক্ষা দফতর হাই কোর্টে জানায়, প্রাথমিক থেকে উচ্চমাধ্যমিক পর্যন্ত স্কুলে ২৫,৬৩০টি শূন্যপদ আছে।

কোন পদের  জন্য কতগুলি স্থান খোলা আছেঃ-  (i) নবম থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত স্কুলে শূন্যপদ আছে ১৩,৮৪২টি। (ii) একাদশ থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত স্কুলে শূন্যপদ আছে ৫,৫২৭টি।  এবং প্রধান শিক্ষক  পদে, ২,৩২৫টি আর প্রাথমিকে শূন্যপদ আছে ৩,৯৩৬টি।

বিশেষ তথ্যঃ- কলকাতা হাই কোর্টের বিচার পতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় জানান, এইসব শূন্যপদে নিয়োগ সংক্রান্ত কোনো মামলা নেই । সরকার আইন মেনে ওইসব পদে নিয়োগ করতে পারে। আদালতের নির্দেশে নিয়োগ প্রক্রিয়া বন্ধ আছে বলে যে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে, এরপর এই মিথ্যা প্রচার করলে আদালত তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে।প্রাথমিকে কেন নিয়োগ হচ্ছে না, তা হলফনামা নিয়ে ১৭ আগস্টের মধ্যে হাই কোর্টে জানানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত। শিক্ষা দফতর যে শূন্যপদের তালিকা দিয়েছে, তার মধ্যে উচ্চমাধ্যমিক স্কুলের শূন্যপদের হিসাব নেই। অন্যদিকে, লাইব্রেরিয়ান, মাদ্রাসা শিক্ষক, শিক্ষাকর্মী, কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক -সহ শিক্ষাকর্মীদের শূন্যপদের তালিকাও নেই। এই তথ্য থেকে বোঝা যাচ্ছে, শিক্ষা দফতরে ২৫,৬৩০টি শূন্যপদ ছাড়াও আরো কয়েক হাজার শূন্যপদ ফাঁকা আছে।

স্কুল শিক্ষা দফতর সূত্রে জানা গেছে, এস.সি.সি.’র সার্ভার রুম খোলার জন্য আবেদন করা হয়েছে। বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় নির্দেশ দিয়েছেন, সার্ভার রুম খোলার সময় সিবিআই ও এন.আই.সি.’র অফিসারদের উপস্থিতিতে সার্ভার রুম খুলতে হবে। খুব শিগগিরই নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হবে।

পশ্চিমবঙ্গ আপার প্রাইমারি চাকরিপ্রার্থী মঞ্চের এক আন্দোলনরত প্রার্থী জানান, উচ্চপ্রাথমিকে যাঁরা যোগ্য বলে বিবেচিত হয়েছেন, কিন্তু ইন্টারভিউয়ে ডাক পাননি, তাঁদের তথ্য জমা জমার দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। স্কুল সার্ভিস কমিশন আদালতে | সেই তথ্য জমা দিলেই মেধা তালিকা প্রকাশ ও নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার অনুমতি পেতে পারেন। এজন্য ডেটা রুম খোলার অনুমতিও দরকার।

এছাড়াও কর্মশিক্ষা ও শারীরশিক্ষা প্রার্থীদের বিষয়ে আদালতে কোনো মামলা নেই। তাই এই দুই বিষয়ে ১,৬০০ শূন্যপদে দ্রুত নিয়োগের দাবি জানায় কর্মশিক্ষা ও শারীরশিক্ষার প্রার্থীদের প্রতিনিধি দল।

 

Leave a Comment